দিলীপ দার কলমে

‘আমার চোখে সেদিন জল এসেছিল…’, দিলীপের কলমে মোদী-স্মৃতি

চোখে জল নিয়ে দাঁড়িয়েছিলাম সেদিন। হাতে ধরা পুষ্পস্তবক। কিন্তু, সুগন্ধ ছড়িয়েছিল দেশের সর্বোচ্চ নেতার আন্তরিকতা। ‘আমি কে?’ উত্তর অন্বেষণ করতে গিয়ে পেয়েছিলাম, ‘দলের একজন সাধারণ কর্মী।’ বছর দুয়েক আগের একটা দিন আমাকে আজও মনে করায়,জননেতা হতে গেলে ভালো মনের মানুষ হওয়া প্রয়োজন। দুবছর আগের সেই দিনটা…বিশ্বভারতীতে আসবেন আচার্য। দেশের প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে হাতে পুষ্পস্তবক নিয়ে …

‘আমার চোখে সেদিন জল এসেছিল…’, দিলীপের কলমে মোদী-স্মৃতি Read More »

লক্ষীর ভান্ডার- শুধু পাইয়ে দেওয়ার রাজনীতি

মজবুত অর্থনীতি মানে যখন সকলের হাতে টাকা। প্রত্যেকে স্বনির্ভর। যে টাকা উপার্জনের মাধ্যমে আসে, কোনও ভাতা বা সরকারি দাক্ষিণ্যে নয়। কিন্তু এই রাজ্যে বিগত বছরগুলোতে সেইসব বিলুপ্তপ্রায়। কারন রাজ্যে চাকরির যেমন তথৈবচ হাল, তেমনই ধুঁকছে শিল্প। অর্থনৈতিক পরিকাঠামোকে সচল রাখতে রাজ্যের ভরসা কেন্দ্রের ঋণ নয়ত বিশ্ব ব্যাংক গুলির কাছে হাত পাতা। অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার কোনও …

লক্ষীর ভান্ডার- শুধু পাইয়ে দেওয়ার রাজনীতি Read More »

।। ওঁ শ্রী দূর্গা মাতায় নমঃ।।

।। ওঁ শ্রী দূর্গা মাতায় নমঃ।। আমার প্রিয় কার্যকর্তা বন্ধুরা,ভারতীয় জনতা পার্টি,পশ্চিমবঙ্গ প্রিয় সাথী, আজ উমা মায়ের কৈলাশে ফিৱে যাওয়ার পূণ্যলগ্নে বয়োজ্যেষ্ঠদের জানাই প্রণাম এবং অন্যদের জন্য আন্তরিক শুভকামনা এবং অভিনন্দন | কালের নিয়মে প্রতি বছর মা পিত্রালয়ে আসেন, আবার নির্দিষ্ট নির্ঘন্ট মেনে চলেও যান। মা আমাদের জন্য নিয়ে আসেন শুভশক্তি ও তাঁর আশীর্বাদ দিয়ে …

।। ওঁ শ্রী দূর্গা মাতায় নমঃ।। Read More »

হিংসামুক্ত পশ্চিমবঙ্গ গড়াই হবে গান্ধীজীর প্রতি আমাদের প্রকৃত শ্রদ্ধাজ্ঞাপন

ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাসে সব থকে বেশি চর্চিত নাম হল মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধী। ব্রিটিশ ভারতের পোরবন্দর দেশীয় রাজ্যে(বর্তমান গুজরাত রাজ্যের) হিন্দু বৈশ্য পরিবারে ২ অক্টোবর ১৮৬৯ খ্রিষ্টাব্দে জন্মগ্রহণ করেন গান্ধীজী। সে এক যুগ সন্ধিক্ষণ। গান্ধীজীর জন্মের কয়েক বছর আগেই জন্মগ্রহণ করেছেন ঠাকুর পরিবারের সর্বশ্রেষ্ঠ সন্তান রবীন্দ্রনাথ আর যুগাবতার শ্রীরামকৃষ্ণের ভাবী শিষ্য স্বামী বিবেকানন্দ। আর তাঁর …

হিংসামুক্ত পশ্চিমবঙ্গ গড়াই হবে গান্ধীজীর প্রতি আমাদের প্রকৃত শ্রদ্ধাজ্ঞাপন Read More »

ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর: বঙ্গজীবনে অনুপ্রেরণার মহাস্রোত

আজ থেকে প্রায় দুশো বছর আগে ১৮২০ সালের ২৬শে সেপ্টেম্বর অধুনা পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার (তৎকালীন অবিভক্ত বাংলার হুগলি জেলা) বীরসিংহ গ্রামে বাঙালি হিন্দু ব্রাহ্মণ পরিবারে ঠাকুরদাস বন্দ্যোপাধ্যায় ও ভগবতী দেবীর পুত্র রূপে জন্মগ্রহণ করেন ঈশ্বরচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়। মাত্র নয় বছর বয়সে বীরসিংহ গ্রাম থেকে কলকাতা শহরে যাওয়ার সময় পথের ধারে মাইলস্টোন দেখে ইংরেজি নম্বর শিখে নিয়েছিলেন …

ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর: বঙ্গজীবনে অনুপ্রেরণার মহাস্রোত Read More »

‘এই মৃত্যু উপত্যকা আমার দেশ না’
প্রিয় পাঠক, শুরুতেই চমকে যাবেন না।

বামপন্থী কবি নবারুণ ভট্টাচার্যের একটি কবিতার শিরোনাম কী করে আমার লেখার শীর্ষক হয়, এই ভেবে চমকে যাবেন না। কোচবিহারের দুলাল ভৌমিক, দক্ষিণ দিনাজপুরের বিশু টুডু, দাড়িভিট গ্রামের ভাষা শহীদ রাজেশ সরকার এবং তাপস বর্মন, পুরুলিয়ার আঠারো বছরের কিশোর ত্রিলোচন মাহাত এবং হেমতাবাদের বিধায়ক দেবেন্দ্রনাথ রায়… সংখ্যাটা গুনে শেষ করা যাবে না। ‘নিও কমিউনিজমের জননী’ আমাদের …

‘এই মৃত্যু উপত্যকা আমার দেশ না’
প্রিয় পাঠক, শুরুতেই চমকে যাবেন না।
Read More »