ইতিহাসের কিছু অজানা অধ্যায়

1} 1951 সালে নেপালের রাজা ত্রিভুবন নেপালকে ভারতের সঙ্গে যুক্ত করার প্রস্তাব দিয়েছিলেন। নেহেরু তা প্রত্যাখ্যান করেন!

2} বালুচিস্তানের নবাব ওয়াহিদ খান নেহেরুকে চিঠি লিখে ভারতের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার অভিমত প্রকাশ করেন, কিন্তু নেহেরু তা প্রত্যাখ্যান করেন!
কিছুদিন পরেই পাকিস্তান বালুচিস্তানের কব্জা করে নেয়।

3} 1947 সালে ওমান নেহেরকে অফার দিয়েছিল আরব সাগরের তীরে গাদার পোর্ট কিনে নেওয়ার জন্য, কিন্তু নেহেরু প্রত্যাখ্যান করেন!
গাদার পোর্ট পাকিস্তান কিনে নিল, নিয়ে চিনকে লিজ দিয়ে দিল! চিন আমাদের মাথার ওপর ছড়ি ঘোরাতে শুরু করল!

4} 1950 সালে নেহেরু বার্মাকে গিফ্ট হিসাবে দিলেন কোকো আইল‍্যাণ্ড! বার্মা ওটা বিক্রি করে দিল চিনকে!
চিন কোকো আইল্যান্ড নিয়ে সেখানে নৌ ঘাঁটি বানিয়ে ভারতের নৌবাহিনীর উপর নজরদারি শুরু করে দিল!

5} 1952 সালে অতি দয়ালু নেহেরু বার্মাকে দান করলেন কাবাও ভ‍্যালে! এর আয়তন 22,327 বর্গ কিলোমিটার! ওটা ছিল কাশ্মীরের মতন আর এক ভূ-স্বর্গ!
বার্মা ওটা নিয়েও চিনকে বিক্রি করে দিল!
চিন ভ‍্যালে তে বায়ুসেনা ঘাঁটি গড়ে আমাদের উপর গুপ্তচর বৃত্তি করছে!

6} ভারত স্বাধীনতা পাবার পরেই আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জন.এফ.কেনেডি নিউক্লিয়ারের উপর এক্সপিরিমেন্ট করার জন্য ও নিউক্লিয়ার সমৃদ্ধ দেশ হবার জন‍্য অফার দেয় নেহেরুকে, কিন্তু নেহেরু রিজেক্ট করলেন!
একসেপ্ট করলে আজকে চীনের বদলে NSG র সদস্য হতো ভারত।
আজ 70 বছর পর NSG তে ঢোকার জন্য পাঁপড় বেলতে হত না। আর চিনের দাদাগিরিও সহ্য করতে হত না!

7} 1950 সালে আমেরিকা ভারতকে রাষ্ট্রসঙ্ঘের স্থায়ী সদস্য হওয়ার জন্য প্রস্তাব দেয়, কিন্তু দানবীর নেহেরু তা প্রত‍্যাখ‍্যান করে চিনের নাম প্রস্তাব করলেন! যার ফলে চিন আজকে ভেটো ক্ষমতার অধিকারী।
1955 সালে আমেরিকা ও রাশিয়া যৌথভাবে ভারতকে অফার করল, কিন্তু নেহেরু স্বমহিমায় আবার প্রত‍্যাখ‍্যান করলেন!

8} 1947 সালের অক্টোবর মাসে পাকিস্তানের ট্রাইবাল আর্মি কাশ্মীরে প্রবেশ করল! সর্দার প‍্যাটেল ভারতীয় ফৌজ পাঠালেন কাশ্মীরের মহারাজকে সহায়তা করার জন্য।
ইণ্ডিয়ান আর্মি যখন পাকিস্তানের উপর বুলডোজার চালাচ্ছে —- তখন নেহেরু হঠাৎ যুদ্ধ বিরতি ঘোষণা করলেন!
লাখো পাকিস্তানী সৈন্য বন্দী হওয়া সত্ত্বেও কাশ্মীরের এক তৃতীয়াংশ পাকিস্তানের দখলে ছেড়ে দিলেন! যেটা আজকে POK নামে পরিচিত।

9} 1962 সালে ভারত-চিন যুদ্ধে ইন্ডিয়ান নিজেদের এয়ারফোর্স প্ল্যান অনুযায়ী চলতে চেয়েছিল —- নেহেরু না করে দিলেন।
পরাজয় স্বীকার করলেন।
তিব্বত, কৈলাস মানস সরোবর এবং COK সহ আকসাই চিন নামক 72000 বর্গ কিমি জায়গা চিনকে উপহার ছেড়ে দিলেন!
পার্লামেন্টের ডিবেটে তিনি যুক্তি দিলেন ওই অঞ্চলে নাকি একটি ঘাসও জন্মায় না তাই ওই অঞ্চলের কোনো গুরুত্ব নাই, অতএব গেছে যাক্ গে।
3000 ভারতীয় সেনা শহীদ হয়েছিলেন তাদেরও কোনো ভ্যালু ছিল না।
এইভাবে ভারতীয় ঐতিহ্যের চূড়ামণি এবং হিন্দু ধর্মের সবথেকে পবিত্র তীর্থক্ষেত্র কৈলাস মানস সরোবর নেহেরুর ভুলে আজকে চিনের দখলে।

নেতাজি সুভাষচন্দ্র বোস সহ লক্ষলক্ষ স্বাধীনতা সংগ্রামী প্রাণের আহুতি দিয়ে যে অখণ্ড ভারত গড়ার রাস্তা তৈরি করে গিয়েছিলেন —- নেহেরুর মতন ধূর্ত ক্ষমতা লোভীরা সেটা ক্ষমতা হাতে পেয়েও হেলায় হারিয়েছেন।

সংগৃহীত ও সম্পাদিত