সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা

সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা

শিক্ষা ও উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ এর দিকে যাতে ভারতের কন্যা সন্তানেরা যেকোন প্রতিবন্ধকতা ছাড়ই এগিয়ে যেতে পারে, সে কথা মাথায় রেখেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ‘সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা’ (Sukanya Samriddhi Yojana) যোজনা চালু করেন।

সমাজে কন্যা সন্তানদের অবহেলিত হওয়ার দিন শেষ। ‘সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা’ তাদের শিক্ষা ও পরবর্তী সময়ে বিবাহের কথা মাথায় রেখেই বানানো হয়েছে। পশ্চিমবংগে ২০১৭-১৮ সালে ১০১১৩৪ জন এবং ২০১৮-১৯ আর্থিক বছরে ৯২৯৯৬ জন বেনিফিসিয়ারী এই প্রকল্পের সুবিধা পাবার আ্যকাউন্ট খুলেছেন।

সুকন্যা সমৃদ্ধি আ্যকাউন্ট কিভাবে খুলবেন ?

একজন পিতামাতা সুকন্যা সমৃদ্ধি প্রকল্পের অধীনে সর্বোচ্চ দুটি অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন, প্রতিটি কন্যার জন্য একটি করে (যদি তাদের দুটি কন্যা থাকে)। যমজ কন্যা সন্তান এর ক্ষেত্রে পিতা-মাতার তিনটি অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন তিনটি কন্যা সন্তানের জন্য।

সুকন্যা সমৃদ্ধি প্রকল্পটি কেবলমাত্র কন্যা শিশুর নামেই খুলতে হবে। মনে রাখা দরকার, শিশুকন্যার নামে অ্যাকাউন্ট খোলা হলেও, এটি চালানোর দায়িত্ব থাকবে শিশুকন্যার বাবার ওপরেই। পিতার অবর্তমানে অন্য কেউ অভিভাবক হিসেবে থাকবেন। শিশুকন্যার বয়স ১৮ বছর হয়ে গেলে সে এই অ্যাকাউন্ট চালাতে পারে।

কোথায় আ্যকাউন্ট খুলবেন ?

সুকন্যা সমৃদ্ধি আ্যকাউন্ট পোস্ট অফিস বা যে কোনো ব্যাংকে খুলতে পারেন; যেমন – স্টেট ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া, ব্যাংক অফ বরোদা, পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংক, ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া, কানাডা ব্যাংক, অন্ধ্র ব্যাংক, ইউকো ব্যাংক এবং এলাহাবাদ ব্যাংক ইত্যাদি। প্রথম অবস্থায় কারোর একাউন্ট পোস্ট অফিস বা ব্যাংকে থাকলেও পরে তা ব্যাংক বা পোস্ট অফিসে স্থানাতর করা যাবে,।

আ্যকাউন্ট খোলার জন্য যে যে প্রামাণ্য নথিপত্রের প্রয়োজন?

কন্যা শিশুর জন্ম প্রমাণপত্র।

অভিভাবকের ঠিকানা এবং ছবিসহ প্রমাণ পরিচয়পত্র (প্যান্ কার্ড, ভোটার আই.ডি, আধার কার্ড)।

ন্যূনতম ২৫০ টাকা টাকা দিয়ে খোলা যাবে এই অ্যাকাউন্ট।এর পর ১৫০ টাকার যে কোনো গুনিতকের সমান জমা করা যাবে প্রত্যেক বছরে। সর্বাধিক একটি বছরে ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা জমানো যেতে পারে।অর্থাৎ এই একাউন্টে গ্রাহক ২৫০ টাকা প্রতিমাসে থেকে শুরু করে, ১,৫০,০০০ টাকা প্রতি বছর এভাবেও জমাতে পারবেন।
অ্যাকাউন্ট খোলার পর থেকে সর্বাধিক ১৫ বছর পর্যন্ত টাকা জমা করা যেতে পারে।
অ্যাকাউন্ট খোলার পর থেকে ২১ বছর পর অ্যাকাউন্টের পুরো টাকা তোলা যায়। তার আগেও শর্ত সাপেক্ষে টাকা তোলা যায়।
অকাল প্রত্যাহার – শিশুর 18 বছর বয়স অর্জনের পরে একটি অকাল প্রত্যাহার করা যায়। এই প্রত্যাহারটি পূর্ববর্তী অর্থবছরের শেষে দাঁড়িয়ে থাকা ব্যালেন্সের 50 শতাংশের মধ্যেও সীমাবদ্ধ থাকবে.
১লা জানুয়ারী ২০২০ থেকে ৩১ শে মার্চ ২০২০ পর্যন্ত এই প্রকল্পে সুদের হার ছিল ৮.৪%। বর্তমানে সমস্ত সেভিংস স্কীম থেকে এমনকি পি পি এফ থেকেও এখানে সুদের হার সবথেকে বেশি।যদিও, সুদের এই হারটি বিভিন্ন সময়ে সংশোধিত হয়ে থাকে সরকারের দ্বারা ।